একেক জা’য়গায় একেক প’রিচয় দিতেন নাসির’ তার টা’র্গেট ধ’নাঢ্য পরিবারের মে’য়েদের ।

ধনাঢ্য পরিবারের মেয়েদের টার্গেট করে ভিন্ন ভিন্ন পরিচয়ে প্রতারণা চালিয়ে আসছিলেন তিনি। একেক সময় একেক পরিচয়। কখনো এসএসএফ’র সহকারী পরিচালক আবার কখনো বড় কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। একেক জায়গায় এমন একেক পরিচয় দিতেন পাবনার নাসির উদ্দিন বুলবুল। অবশেষে এক মেয়ের বাবার সঙ্গে এসএসএফ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতা’র’ণা করতে গিয়ে ধরাশায়ী হলেন নাসির। সঙ্গে তার সহযোগী মনির হোসেনকেও আ’ট’ক করেছে পুলিশ। রোববার সকালে গণভবন এলাকা থেকে তাদের আ’ট’ক করা হয়। প্রতারণার অভিযোগে শেরেবাংলা নগর থানায় তাদের বিরুদ্ধে

প্র’ফেসর মো. নূরুল হক মিয়া আর নে’ই’ ৮ সন্তান সবাইকেই তিনি কো’রআনে হাফেজ বানিয়েছেন।

ঢাকা কলেজের সাবেক প্রিন্সিপাল প্রফেসর মো. নূরুল হক মিয়া আর নেই। তিনি ছিলেন প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন শাইখুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক (রহ.)-এর জামাতা। তিনি দুই ছেলে ও ছয় কন্যার জনক। সবাইকেই তিনি কোরআনে হাফেজ বানিয়েছেন। দুই ছেলেই মাওলানা। দুইজনই দেশে প্রথম সারির দ্বীনি প্রতিষ্ঠান জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়ার শিক্ষক। ঢাকা কলেজ প্রিন্সিপালের আট স’ন্তানই হাফেজ।পারিবারিক সূত্র জানায়, ছাত্রজীবন থেকেই তাবলিগ জামাতের স’ঙ্গে জ’ড়িত ছিলেন। অধ্যাপনা ও লেখালেখির পাশাপাশি সারা জীবনই দাওয়াত ও তাবলিগের কাজ করেছেন।