সম্প্রতি করোনায় মৃত্যুর আগে ফেসবুকে লিখলেন চিকিৎসক ‘দেহের মৃত্যু হয়, আত্মার নয়’

যতদিন যাচ্ছে অবস্থা তত ভয়ানক হয়ে উঠছে। সর্বকালের সমস্ত রেকর্ড ছাপিয়ে এখন ভারতে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় তিন লাখ ছুঁইছুঁই। তার মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা দিল্লি আর মহারাষ্ট্রের। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে এখন টালমাটাল ভারত। হাসপাতালে বেড নেই, চিকিৎসক, নার্সরাও আক্রান্ত হচ্ছেন, অক্সিজেনের অভাব, শ্মশানে নিভছে না আগুন, কবরস্থানে মৃতদেহ রাখার জায়গা নেই, বিভীষিকাময় পরিস্থিতি চারিদিকে।

এর মধ্যেই ভারতের বহু চিকিৎসক, নার্স, সেবাকর্মীরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। দিনের পর দিন করোনারোগীদের সঙ্গে থাকতে থাকতে তাঁদের শরীরেও বাসা বাঁধছে এই ভাইরাস। কেউ লড়াইয়ে জয়লাভ করছেন, কেউ পারছেন না। অকালেই চলে যাচ্ছে পৃথিবী ছেড়ে। তেমনই কভিডে প্রাণ হারালেন মুম্বাইয়ের বিশিষ্ট চিকিৎসক ৫১ বছরের ড. মণীষা যাদব। সেওরি টিবি হাসপাতালের সিনিয়র মেডিক্যাল অফিসার ছিলেন তিনি।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে কিছুদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হযেছিলেন তিনি। কিন্তু অবস্থা প্রতিদিন একটু একটু করে খারাপ হচ্ছিল। এরপর গতকাল ফেসবুকে তিনি একটি পোস্ট দেন। সম্ভবত নিজের সময় ফুরিয়ে আসছে বুঝতে পেরেই কিছু কথা শেয়ার করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

ড. মণীষা লেখেন, ‘সম্ভবত এটাই আমার জীবনের শেষ সকাল। আর কখনও এখানে আপনাদের সঙ্গে দেখা হবে না। সকলে নিজেদের যত্ন নেবেন। দেহের মৃত্যু হয়, কিন্তু আত্মার নয়। আত্মা অমর’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *