কৃষক বাবার সন্তান হিসেবে’ লুঙ্গি-গেঞ্জি ও গামছা পরে বিসিএস পরীক্ষা দিলেন শিবলু

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল একটি ছবি। যেখানে দেখা যাচ্ছে, লুঙ্গি-গেঞ্জি ও গামছা পরা এক যুবক পরীক্ষার একটি কেন্দ্রের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন। হাতে পরীক্ষার প্রবেশপত্র।

তার খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তার নাম খায়রুল হাসান শিবলু। গত শুক্রবার (১৯ মার্চ) ছবিটি ফেসবুকে দিয়ে ক্যাপশনে ওই যুবক লিখেন, তৃতীয় ও শেষ বিসিএস পরীক্ষা। তাই আজ লুঙ্গি পরেই পরীক্ষা দিলাম।’

তার পরীক্ষার কেন্দ্র ছিল রাজধানীর মহাখালীস্থ টি এন্ড টি মহিলা কলেজে। ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার আতকাপাড়া গ্রামের মৃত আবুল হাসান কাদেরের ছেলে শিবলু। তিনি ২০০৬ সালে এসএসসি ২০১০ সালে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ২০১৫ সালে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং (সিভিল) পাশ করেন। তাছাড়া এলএলবি প্রিলি ২ বছরের কোর্সও সম্পন্ন করা আছে তার।

পরীক্ষার হলে লুঙ্গি পরে যাওয়ার কারণ কি? জানতে চাইলে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, পোষাকটি শুধু আরামদায়ক নয়, এটি বাঙ্গালির ঐতিহ্যও বটে। আর সেই পোষাক পরেই আমি ৪১তম বিসিএস পরীক্ষা দিলাম।

তিনি আরো বলেন, আমরা বিদেশি সংস্কৃতিকে লালন করি না। বরং দেশীয় ঐতিহ্যকে ধারণ করে নিজেকে পরিচয় দিলাম একজন কৃষক বাবার সন্তান হিসেবে। আমাকে প্রকৃত বাঙালি হিসাবে পরীক্ষা হলে যেতে অনুমতি দেয়ার জন্য টি এন্ড টি মহিলা কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে কৃতজ্ঞ। পাশ্চাত্য সংস্কৃতি এড়িয়ে নিজেকে বাঙালি হিসেবে পরিচয় দিয়ে পরীক্ষা দিলাম।

বাঙ্গালির ঐতিহ্যবাহী এই পোশাক পরে বিসিএস পরীক্ষার হলে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশংসার পাশাপাশি অনেকে সমালোচনাও করেছেন। তাদের সমালোচনাকে কেমন দেখছেন? শিবলু বলেন, বিভিন্ন জনের বিভিন্ন মত থাকতে পারে, তবে সবাইতো বাঙালি।

তিনি আরো বলেন, পহেলা বৈশাখে লুঙ্গি-গামছা নিয়ে নেমে যায় আর গিটার বাজিয়ে গান গায়। আবার বৈশাখ নিয়ে নাচানাচি করে। সংস্কৃতি দেখায়। আর একজন বাঙ্গালির ঐতিহ্য প্রকাশ করায় আমাকে নিয়ে ট্রল করছেন, আসলে ট্রলের পাত্র আমি না যারা আমাকে করার চেষ্টা করছেন তারাই!

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

এ পর্যন্ত তিনবার বিসিএস পরীক্ষা দিয়েছেন শিবলু। ৩৮তম, ৪০তম ও সর্বশেষ ৪১তম। সদ্য ৪১তম বিসিএস পরীক্ষা কেমন হয়েছে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, পরীক্ষা বেশ ভালো হয়েছে। ইনশাল্লাহ আশা ও আত্মবিশ্বাস রয়েছে। বাকিটা আল্লাহ ভরসা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *